Apollo Hospitals
অ্যাপোলো লাইফলাইন জাতীয়
অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করুন
Apollo Emergency Number - 1066
Apollo Emergency Number - 1066
Joint Commission International
Mobile Navigation

শ্রেষ্ঠত্ব কেন্দ্র

স্বাস্থ্যসেবাতে আপনাকে সেরাের চেয়ে কম কিছুই সরবরাহ করতে সেরা বিশেষজ্ঞ এবং সরঞ্জামগুলির সংমিশ্রণ করা

কোম্পানির আলোকপাত

1983 সালে অ্যাপোলো হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন ডাক্তার প্রতাপ সি রেড্ডি, ভারতে আধুনিক হেলথকেয়ারে যিনি ছিলেন স্বনামধন্য। দেশের প্রথম কর্পোরেট হাসপাতাল রূপে, দেশে বেসরকারি হেলথকেয়ার বিপ্লবের পথিকৃৎ হিসেবে গণ্য অ্যাপোলো হাসপাতাল।

এশিয়ার প্রধান ব্যাপক হেলথকেয়ার পরিষেবা ব্যবস্থাপক হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে অ্যাপোলো হাসপাতাল এবং হেলথকেয়ার ইকোসিস্টেমে এর উপস্থিতি দীপ্যমান; হাসপাতাল, ফার্মেসি, প্রাইমারি কেয়ার ও ডায়াগনস্টিক ক্লিনিক এবং কিছু রিটেল হেলথ মডেল সহ অন্যত্রও। এই গ্রুপের এইসঙ্গে রয়েছে বিভিন্ন দেশজুড়ে টেলিমেডিসিন সুবিধা, হেলথ ইনস্যুরেন্স সার্ভিস, গ্লোবাল প্রজেক্ট কনসালটেন্সি, মেডিক্যাল কলেজ, ই-লার্নিঙের জন্য মেডভার্সিটি, নার্সিং কলেজ ও হসপিটাল ম্যানেজমেন্ট এবং একটি রিসার্চ ফাউন্ডেশন। এ ছাড়া ‘এএসকে অ্যাপোলো’ – একটি অনলাইন কনসালটেশন পোর্টাল এবং অ্যাপোলো হোম হেলথ প্রদান করে পরিচর্যা ব্যবস্থা।

অ্যাপোলোর লিগ্যাসির মূলস্তম্ভ হচ্ছে ক্লিনিক্যাল উৎকর্ষে অবিরল ফোকাস, সুলভ মূল্য, আধুনিক প্রযুক্তি এবং আগামীর দিকে তাকিয়ে গবেষণা ও অ্যাকাডেমিক্স। মসৃণ হেলথকেয়ার ডেলিভারির ব্যবস্থা আছে এরকম পৃথিবীর প্রাচীনতম হাসপাতালগুলির মধ্যে অ্যাপোলো হাসপাতাল অন্যতম। বিশ্বব্যাপী মেডিক্যাল সরঞ্জামের দ্রুত উন্নয়নের ফলে এই সংস্থা আশীর্বাদপুষ্ট হয়েছে এবং ভারতে বিভিন্ন আধুনিক উদ্ভাবন প্রবর্তনের পথিকৃৎ হতে পেরেছে। অ্যাপোলো হাসপাতাল দ্বারা অন্যতম তাৎপর্যপূর্ণ প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা যা প্রবর্তন করা হয়েছে তা হল চেন্নাইয়ে প্রটোন থেরাপি সেন্টার – গোটা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এরকম সেন্টার এটাই প্রথম, এই অঞ্চলের 3.5 বিলিয়নের বেশি মানুষকে যা পরিষেবা দিচ্ছে।

ভারতের মধ্যে অ্যাপোলো হাসপাতালেই প্রথম প্রিভেনটিভ হেলথ চেক-এর ধারণা প্রবর্তিত হয়। 1987 সালে প্রতিষ্ঠা থেকেই আজ পর্যন্ত, 20 মিলিয়নেরও বেশি হেলথ চেক সমাপ্ত হয়েছে।

ভারতে কার্ডিওলজি পরিষেবার বৃহত্তম প্রদানকারী হল অ্যাপোলো হাসপাতাল। 9টার মধ্যে 6টা মিট্রাক্লিপ প্রণালি সহ আধুনিক কার্ডিয়াক ইন্টারভেনশনাল পদ্ধতি সহ সবচেয়ে বেশি সংখ্যক কার্ডিওভাসকুলার রোগীর চিকিৎসা করেছে অ্যাপোলো হাসপাতাল, দুর্দান্ত ক্লিনিক্যাল ফলাফল সহ 85 টিএভিআই/টিএভিআর এবং দেশজুড়ে 1250-রও বেশি এমআইসিএস সিএবিজি প্রণালি।

প্রতিষ্ঠা থেকেই অ্যাপোলো হাসপাতাল 150 মিলিয়নের বেশি ব্যক্তির আস্থা দ্বারা সম্মানিত যাঁরা হলেন 140টি দেশের মানুষ। অ্যাপোলোর রোগী-কেন্দ্রিক সংস্কৃতির মূল বিষয় হল টিএলসি (টেন্ডার লাভিং কেয়ার), সেই জাদু যা এর রোগীদের আশায় উদ্বুদ্ধ করে।

Apollohospitals

কোম্পানির দৃষ্টি

উন্নয়নের পরবর্তী ধাপের জন্য অ্যাপোলো এর দৃষ্টি ‘স্পর্শ করুন বিলিয়ন লাইভস’ হয়।

Apollohospitals

মিশন স্টেটমেন্ট

“আমাদের লক্ষ্য যে ব্যক্তির নাগালের মধ্যে আন্তর্জাতিক মান স্বাস্থ্য আনতে। আমরা কৃতিত্ব এবং শিক্ষা, গবেষণা ও স্বাস্থ্য শ্রেষ্ঠত্ব রক্ষণাবেক্ষণ মানবতার সুবিধার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়”।

ভারতের মধ্যে একমাত্র অ্যাপোলো হাসপাতাল গ্রুপই মাইক্রোসফট এআই নেটওয়ার্কের সঙ্গী এআই-পাওয়ার্ড কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ রিস্ক স্কোর এপিআই-এর জন্য। রোগীদের মধ্যে সিভিডি-র ঝুঁকি আছে কি না তা 5-7  বছর আগে ডাক্তারদের অনুমান করতে সক্ষম করে এপিআই। আজ পর্যন্ত 200000-এর বেশি রোগীর স্ক্রিনিং হয়েছে।

অ্যাবটের সঙ্গে অংশীদারিত্বে অ্যাপোলো হাসপাতাল এইসঙ্গে ভারতের প্রথম ন্যাশনাল কার্ডিয়াক রেজিস্ট্রি স্থাপন করেছে। 

ভারতে অ্যাপোলো হাসপাতালই প্রথম এবং বৃহত্তম হাসপাতাল গোষ্ঠী যারা অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করতে এবং নিকটতম হাসপাতাল ও ফার্মেসি খুঁজতে আমাজন অ্যালেক্সায় একটি শৈলী প্রবর্তন করেছে এআই-পাওয়ার্ড ভয়েস সহায়তা ব্যবহার করে।

দায়িত্ববান কর্পোরেট নাগরিক হিসেবে, অ্যাপোলো হাসপাতাল ব্যবসা ছাড়িয়ে গ্রহণ করেছে নেতৃত্বের স্পিরিট এবং ভারতকে স্বাস্থ্যবান রাখার দায়িত্ব দায়িত্ব নিয়েছে। জাতির পক্ষে নন-কমিউনিকেবল ডিজিজ (এনসিডি)সবচেয়ে বড় ভীতি চিহ্নিত করে অ্যাপোলো হাসপাতাল ধারাবাহিকভাবে মানুষকে সচেতন করছে প্রতিরোধমূলক স্বাস্থ্যসেবা হল কল্যাণের চাবিকাঠি এই সম্পর্কে। যেমন ডাক্তার প্রতাপ সি রেড্ডির দৃষ্টিভঙ্গি, ‘বিলিয়ন হার্টস বিটিং ফাউন্ডেশন’ পরিবেশ ভারতীয়দের হৃদয়-স্বাস্থ্যকর রাখে।

অ্যাপোলো হাসপাতাল অসংখ্য সামাজিক প্রচেষ্টায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে – যার মধ্যে কয়েকটি হল অনগ্রসর শিশুদের সহায়তা করতে – এসএসিএইচআই (সেভ অ্য চাইল্ড’স হার্ট ইনিশিয়েটিভ) যা স্ক্রিন করে এবং কনজেনিটাল হৃদরোগের জন্য পেডিয়াট্রিক কার্ডিয়াক কেয়ার প্রদান করে, এসএএইচআই (সোসাইটি টু এইড দ্য হিয়ারিং ইমপেয়ার্ড) এবং কিওর ফাউন্ডেশন ফোকাস করে ক্যানসার কেয়ারে। ভারতীয় প্রেক্ষিতে জনসংখ্যা স্বাস্থ্য প্রবর্তন, টোটাল হেলথ ফাউন্ডেশন, যা ডাক্তার রেড্ডি দ্বারা প্রতিষ্ঠিত, অন্ধ্রপ্রদেশের থাভানাম্পাল্লে মণ্ডলে হেলথকেয়ারের এক অনন্য মডেল চলছে। এর লক্ষ্য সব সম্প্রদায়কে জন্ম থেকে শুরু করে ‘হলিস্টিক হেলথকেয়ার’ প্রদান করা, শৈশব থেকে কৈশোর, যৌবন এবং বৃদ্ধ বয়সে। 

সর্বস্তরে অ্যাপোলোর অবদানের স্বীকৃতিতে ভারত সরকার একটি কমমেমোরেটিভ স্ট্যাম্প ইস্যু করেছে, যা এক বিরল সম্মান, কোনো হেলথকেয়ার সংস্থার জন্য প্রথম। এইসঙ্গে, একটি স্ট্যাম্পও প্রকাশ পেয়েছে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভারতের প্রথম সফল লিভার প্রতিস্থাপনের পঞ্চদশ বার্ষিকী উপলক্ষে। অতি সম্প্রতি অ্যাপোলো হাসপাতাল ফের সম্মানিত হয়েছে একটি পোস্টাল স্ট্যাম্পে 20 মিলিয়ন সফল হেলথ চেক পারফর্ম এবং দেশে প্রতিরোধমূলক স্বাস্থ্যসেবায় এর প্রথম প্রচেষ্টার জন্য। 

ডাক্তার প্রতাপ সি রেড্ডি, অ্যাপোলো হসপিটালস গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ভূষিত হয়েছে মর্যাদাব্যঞ্জক পদ্মভূষণ সম্মানে, যা ভারতের দ্বিতীয় অসামরিক সম্মান।

তথ্য ও সংখ্যা – অ্যাপোলো হাসপাতাল

একনজরে
হাসপাতাল 71
বেডের সংখ্যা 12000
ফার্মেসির সংখ্যা 3400
প্রাইমারি কেয়ার ক্লিনিকের সংখ্যা 90 এর বেশি
ডায়াগনস্টিক কেয়ারের সংখ্যা 150
টেলিমেডিসিন সেন্টারের সংখ্যা 110+
মেডিক্যাল এডুকেশন সেন্টার এবং রিসার্চ ফাউন্ডেশনের সংখ্যা 15 র বেশি